সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানী আইনস্টাইন বলছেনঃ Compound interest is the eight wonder of the world. ওনার এই কথার সাথে এক মত হয়ে ড্যারেন হার্ডি একটি বই লিখেছেন, যার নাম হলোঃ The Compound Effect, যা নিউওয়ার্ক টাইমস বেস্ট সেলিং বুকস এর একটি। এই বইটি আজকে পড়ে কিছু জিনিস শিখতে পেরেছি, তার মধ্যে থেকে কিছু শেয়ার করছি।

শুরুতেই একটা প্রশ্ন করেনি, কোন মানুষের সফলতার পিছনে রুট ফ্যাক্টর কি? তার ছেলে বেলা, কিভাবে বড় হয়ছে, পরিবেশ, নাকি অন্য কিছু?

লেখকের মতে, এই রুট ফ্যাক্টর হলো, তার নিজের নেওয়া ছোট ছোট চয়েজ গুলো। এই পুরো বিশ্বে শুধু মাত্র একটি জিনিস আছে, যা আমরা কন্ট্রোল করতে পারি, আর তা হলো আমাদের চয়েজ। আর এই চয়েজ গুলো আমাদের জীবনের প্রতিটা ফিল্ডে আউট কামসের জন্য দায়ী।

আপনি যদি ইচ্ছে করেন, তবে অফিস থেকে ফেরার পরে চাইলে জিমে যেতে পারেন, চাইলে সোফাতে বসে টিভিও দেখতে পারেন, বা চাইলে আপনার ওয়াইফের সাথে লড়াই ঝগড়া মিটিয়ে আবার আগের মত করে তাকে জড়িয়েও ধরতে পারেন, বা আপনি তাকে প্রশ্রয় না দিয়ে সেখান থেকে বেরিয়েও আসতে পারেন। এই সব কিছু নির্ভর করছে, আপনার ছোট ছোট চয়েজের উপর।

আপনি সারা জীবন হেলদি থাকবেন, নাকি রোগের ডিব্বা হয়ে থাকবেন, আপনি আপনার পরিবারের সাথে শান্তিপুর্ন সম্পর্ক রাখবেন, নাকি আপনার মেয়েকে জবাব দিতে হবে, কেন আপনি তার মাকে ডিভোর্স দিলেন, চয়েজ ইজ ইউরস।

মজার বিষয় হচ্ছে, আমরা এই রকম ছোট ছোট বিষয় গুলোতে মন দিই না। যদি আমি এখনি আপনাকে একটা অফার দিই যেঃ আপনাকে একটি এক টাকার কয়েন দিবো, যা আগামী এক মাসের জন্য প্রতিদিন ডাবল হবে, আর দুই নাম্বার আপনাকে এখনি ১০ লক্ষ টাকা দিবো, আচ্ছা আরো একটি বাড়িয়ে দিই, ১০ কোঁটি টাকা দিবো, তাহলে আপনি এর মধ্যে কোন অফারটি নিবেন?

কি, দুই নাম্বার, মানে ১০ কোঁটি টাকা, তাইতো? ওকে ফাইন, দিলাম আপনাকে ১০ কোঁটি টাকা, আর ঐ এক টাকার কয়েনটি আমার কাছে রেখে দিলাম।

এবার দেখা যাক, এর অউট কামস কি আসে। ৫ দিন পর আমার কাছে আছে ১৬ টাকা, আর আপনার কাছে ১০ কোঁটি। যা দিয়ে আপনি খুব মজা মাস্তিতে আছে, পার্টি করে বেড়াচ্ছেন।

১০ দিন পর আমার কাছে ৫১২ টাকা, আর আপনার কাছে হয়তো সেই ১০ কোঁটি টাকা বা তার কম। ২০ দিন পর আমার কাছে আছে ৫,২৪২ টাকা, আর আপনার কাছে সেই ১০ কোঁটি টাকা। ৩১ দিন পর আপনার কাছে আছে সেই ১০ কোঁটি টাকা, কিন্তু আমার কাছে আছে ১০৭,৩৭,৪১,৮২৪ টাকা, যা কি আপনার থেকে ১০ গুন বেশি।

এবার নিশ্চয় বুঝইতে পারছেন, আইন্সটাইন কম্পাউন্ড ইন্টারেস্টকে কেন ৮ম আশ্চার্য্য বলেছেন। সফলতা ঠিক এই প্যাটার্নকেই ফলো করে।

লেখকের মতে, একটি জিনিস সফল এবং অসফল দুই ধরনের মানুষের মধ্যেই আছে, আর তা হল সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহন করা। সামনে যদি একটু হট চকলেট আর এক গ্লাস পানি থাকে, তখন কেউই হট চকলেট রেখে এক গ্লাস পানিকে বেছে নিবে না, যেখানে চকলেট থেকে পানি স্বাস্থের জন্য বেশি উপরকারি।

একটি সমিক্ষায় দেখা গেছে সফল ব্যাক্তিরা এমন অনেক কিছুই ত্যাগ করেন, যা ত্যাগ করতে তাদের অনেক কিছুই ত্যাগ করতে হয়ছে। যে যত বেশি নিজের willpower কে ব্যবহার করতে পারে, সে তত বেশি সফল। যেমন বিশ্ব বিখ্যাত মোহাম্মদ আলি বলছিলেনঃ I hated every minute of training, but I loved being a world champion.

সার সংক্ষেপ হচ্ছে, আমরা যত বেশি আমাদের ঐ ওয়াইল পাওয়ার কে কাজে লাগাবো, ততো বেশিই সফলতার দিকে এগিয়ে যাবো। তাই আজ থেকে আমাদের উচিত একটি ডেইলি চেক লিস্ট করে নেওয়া, যেখানে হয়তো থাকবে, রেগুলার এক্সারসাইজ করা, ইন্সপাইরেশনাল ভিডিও দেখা, ভাল ভালো বই পড়া ইত্যাদি ইত্যাদি। তাহলে হয়তো একদিন অনেক বড় সফল ব্যাক্তি না হতে পারলেও, কম পক্ষে নিজের স্বপ্ন পূরণের কাছা কাছি চলে যেত পারবো।

বেস্ট অফ লাক।।



Add Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.